আল্লাহর ওলীর পরিচয়

আল্লাহর ওলীর পরিচয়

পাক কুরআন ও হাদীসের আলোকে আল্লাহর ওলীর পরিচয় :   ‘ওলী’ শব্দটি আরবী বিলায়াত / ওয়ালায়াত শব্দ থেকে গৃহীত। শব্দটির অর্থ নৈকট্য, বন্ধুত্ব বা অভিভাবকত্ব। বিলায়াত অর্জনকারীকে ‘ওলী’ /‘ওয়ালী’ বলা হয়। অর্থাৎ নিকটবর্তী, বন্ধু, সাহায্যকারী বা অভিভাবক। ইসলামী পরিভাষায় ‘বিলায়াত’ ‘ওলী’ ও ‘মাওলা’ শব্দের বিভিন্ন প্রকারের ব্যবহার রয়েছে। উত্তরাধিকার আইনের পরিভাষায় ও রাজনৈতিক পরিভাষায় এ সকল শব্দ বিশেষ অর্থে ব্যবহৃত। তবে বেলায়েত বা ওলী শব্দের সর্বাধিক ব্যবহৃত হয় ‘আল্লাহর বন্ধুত্ব’ ও ‘আল্লাহর বন্ধু’ অর্থে।‘ওলী’ শব্দের বহুবচন হলো আউলিয়া। আমি এখানে আল্লাহর ওলী বা আল্লাহর বন্ধুর পরিচয় সম্পর্কে কুরআন পাক ও…

নবীজি (সাঃ) এর ছুরুত কয়টি ও কী কী

নবীজি (সাঃ) এর ছুরুত কয়টি ও কী কী

নবীজি (সাঃ)এর ছুরুত মোবারক তিনটি। ১. ছুরুতে হাক্কী। ২. ছুরুতে মালাকী। ৩. ছুরুতে বাশারি। ১. ছুরুতে হাক্কী মি’রাজ রজনীতে প্রকাশ হয়েছে। যেখানে নূরের তৈরি ফেরেস্তা জিব্রাঈল (আঃ) সিদরাতুল মুন্তাহার পরে আর যেতে পারে না। জিব্রাঈল(আঃ) বলেন। ﻻ ﺍﻗﺪﺭ ﻭﻟﻮﺧﻄﻮﺕ ﺧﻄﻮﺓ ﻻﺣﺘﺮﻗﺖ অর্থ- হুজুর! আমি আর যেতে পারবোনা, যদি এক পা অগ্রসর হই, তাহলে আমার ছয়শত নূরের পাখা জ্বলেপুড়ে ছাই হয়ে যাবে। সেখানে আমাদের নূরের নবী যেতে পারে। নবীজির রুহ মোবারক নূর দ্বারা সৃষ্টি। শরীর মোবারকও নূর দ্বারা সৃষ্টি। ২. ছুরুতে বাশারি মানবীয় শরীরে কোন ছায়া ছিল না কারন তা নূরের…

আসহাবে সুফফা

আসহাবে সুফফা

প্রিয় রাসূল (সাঃ) এর মহব্বতে দুনিয়ার সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করে যারা মসজিদে নববী পড়ে থাকতেন তিঁনারাই অাসহাবে সুফফা। দিবা-রাত্রি রসূলের মহব্বত আর আল্লাহ ইবাদতে মশগুল থাকাই ছিলো তিঁনাদের কাজ। আল্লাহপাক কোরআন মাজিদে ফরমান, ” যারা দিন-রাত আল্লাহকে ডাকে এবং আল্লাহর সন্তুষ্টি কামনা করে তাদের স্বীয় সহচার্য হতে দূরে সরিয়ে রাখবেন না” – সূরা- আল আনআমঃ৫২ হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রাঃ) ফরমান, “একদিন রাসূল (সাঃ) আসহাবে সুফফাগনেন কাছে দিয়ে যাওয়ার সময় দেখলেন, অর্ধাহারে-অনাহারে থাকা সত্ত্বেও তাঁরা আনন্দিত। তিঁনি তাদের বললেন, ” হে আসহাবে সুফফা! তোমাদের ও অামার ঐসব উম্মতের জন্য সুসংবাদ…

অভিশাপ

কাউকে অভিশাপ দেওয়ার পরিণতি

অভিশাপ আমরা রাগে ক্ষোভে বা হুদাই অথবা নিজের মতের বিপরীতে গেলে অন্যজনকে অভিশাপ দেই, গজব দেই, ক্ষতি বা ধ্বংষ কামনা করি। এমন বাজে কাজ আমাদের অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। কিন্তু ইসলামে বিশেষ করে তরিকতপন্থীদের জন্য ইহা হারাম কাজ। সূফীবাদের আরেক নাম প্রেম বিতরণ, অভিশাপ দেয়া নয়। মুমিন মুসলমানগণ কখনো কাউকে অভিশাপ দেয় না। এই সম্পর্কে হযরত রাসূল (সাঃ) ফরমান, “মু’মিন কখনো অভিসম্পাতকারী হয় না।” (তিরমিজি শরীফ) হযরত রাসূল (সাঃ) উম্মতে মুহাম্মদীকে সর্তক করে বলেন, “তোমরা পরস্পর আল্লাহর লানত, তার গজব ও জাহান্নামের অভিশাপ দিবে না।” (তিরমিজি শরীফ) হযরত মাওলানা শাহসূফী খাজাবাবা…

নবী করিম (সাঃ) কিসের তৈরি

নবী করিম (সাঃ) কিসের তৈরি নবীজি সাঃ নুরের তৈরি তার দলিলঃ আল্লাহ তায়া’লা ইরশাদ করেন- ﻗﺪ ﺟﺎﺀﻛﻢ ﻣﻦ ﺍﻟﻠﻪ ﻧﻮﺭ ﻭ ﻛﺘﺎﺏ ﻣﺒﻴﻦ – অর্থঃ নিশ্চয়ই তোমাদের নিকট আল্লাহর পক্ষ থেকে একটা নূর এবং স্পষ্ট কিতাব এসেছে।। (সূরা মায়িদা আয়াত- ১৫) আলোচ্য আয়াতে নূর দ্বারা নবী করীম (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) কে বুঝানো হয়েছে। নিম্নে আরো কয়েকটি প্রসিন্ধ তাফসীরের আলোকে দলিল উপস্থাপন করা হলঃ- দলিল নং ১ বিশ্ব বিখ্যাত মুফাসসিরে কোরআন হযরত ইবনে আববাস (রাঃ) এর বিশ্ব বিখ্যাত তাফসীর গ্রন্থ ইবনে আববাস এর মধ্যে আছে- ﻗﺪ ﺟﺎﺀﻛﻢ ﻣﻦ ﺍﻟﻠﻪ ﻧﻮﺭ…

বায়াত না হওয়ার কুফল

বায়াত না হওয়ার কুফল ﻣﻦ ﻳﻬﺪ ﺍﻟﻠﻪ ﻓﻬﻮ ﺍﻟﻤﻬﺘﺪ ﻭ ﻣﻦ ﻳﻀﻠﻞ ﻓﻠﻦ ﺗﺠﺪ ﻟﻪ ﻭ ﻟﻴﺎ ﻣﺮﺷﺪﺍ অথ:আল্লাহ যাদেরকে পথ দেখান তারাই পথ পায় আর যাদেরকে পথভ্রষ্ট বা গোমরাহ করেন তারা কোন ওলীকে মুর্শিদ হিসেবে পাইবে না -সুরা কাহাফ ১৭নং আয়াত এই আয়াতে স্পষ্ট বলা হয়েছে যারা ওলীদেরকে মুর্শিদ হিসাবে ধরেনা তারা পথভ্রষ্ট ও গোমরাহ। ﻭﻣﻦ ﻳﻀﻠﻞ ﺍﻟﻠﻪ ﻓﻠﻦ ﺗﺠﺪ ﻟﻪ ﺻﺒﻼ অর্থঃ আল্লাহ যাদেরকে গোমরাহ করেন তারা কোন ত্বরিকা বা রাস্তা খোজে পাবেনা। -সুরা নিসা ১৪৩নং আয়াত। সুতরাং যারা ত্বরিকা মানেনা তারা পথভ্রষ্ট, ইহা মহান আল্লাহর ফতুয়া। ﻗﺎﻝ…